শান্তি-নিরাপত্তায় রক্ষায় সেনাবাহিনীকে প্রস্তুত থাকতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

দেশের এবং বিশ্বের শান্তি-শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা রক্ষায় সর্বদা সেনাবাহিনীকে প্রস্তুত থাকতে হবে। সংবিধান ও দেশের সার্বভৌমত্ব সুরক্ষায় সেনাবাহিনীকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার সকালে নাটোরের কাদিরাবাদ সেনানিবাসের সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের ৬ষ্ঠ কোর পুনর্মিলনী-২০১৮ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বেলা সাড়ে ১১টায় তিনি অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। পরে প্রধানমন্ত্রী কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ এখন ডিজিটাল হয়েছে। বিশ্বের উন্নত দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ডিজিটাল খাতে অবদান রাখছে বাংলাদেশ। অবকাঠামো উন্নয়ন ও বিদ্যুৎ খাতে উন্নয়ন হয়েছে। ৫ কোটি মানুষ নিম্নবিত্ত থেকে মধ্যবিত্ত থেকে ওঠে এসেছে। উন্নয়ন প্রকল্পের ৯০ ভাগ নিজস্ব অর্থায়নে ব্যয় করা হয়েছে।

এর আগে সকালে সাড়ে ৯টার দিকে কাদিরাবাদ সেনানিবাসের উদ্দেশে তেজগাঁও পুরনো বিমানবন্দর থেকে যাত্রা করেন।

বিকেল ৩টায় রাজশাহী সরকারি হাইমাদরাসা মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে তিনি রাজশাহীতে বেশ কিছু উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন ও ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন।

এ সফরে প্রধানমন্ত্রী ৩১টি উন্নয়ন প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। প্রধানমন্ত্রীর সফরকে কেন্দ্র করে রাজশাহী ও নাটোরের সড়কগুলো ব্যানার, বিলবোর্ড, তোরণসহ বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে। এছাড়া চার স্তরের বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।