জনগণের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করতে না পারলে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ার কোন যুক্তিকতা নেই

140
চট্টগ্রাম-১৫ (লোহাগাড়া-সাতকানিয়া) আসনের সাংসদ প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী বলেন, জনগণের ভাগ্য উন্নয়নে এবং এলাকার অবকাঠামোগত উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে না পারলে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়া কোন যুক্তিকতা থাকতে পারে না। তিনি বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী অবহেলিত সাতকানিয়া লোহাগাড়ায় উল্লেখযোগ্য কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সুদৃষ্টি এবং তাঁর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় সাতকানিয়া লোহাগাড়াবাসীর ভাগ্য পরিবর্তন ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে ইতিমধ্যে প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া নদীর ভাঙ্গন প্রতিরোধ, জনগুরুত্বপূর্ণ সড়ক, ব্রীজ, কালভার্ট এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভবন নির্মানে আরো কয়েক হাজার কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ১৩৭ বছর পূর্বে ১৯৮০ সালে প্রতিষ্ঠিত কালের স্বাক্ষী ঐতিহ্যবাহী সাতকানিয়া আদালত প্রতিষ্ঠিত হলেও এর অবকাঠামোগত উন্নয়নে কোন কার্যকর উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। তিনি সাতকানিয়া আদালত ভবনের আধুনিকায়ন, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণে আইন মন্ত্রণালয়ের সাথে যোগাযোগ করে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেন।
সাতকানিয়া আইনজীবী সমিতির উদ্যোগে আজ ১১ জুন, রবিবার দুপুর ২ টায় সাতকানিয়া আদালত ভবন সম্প্রসারণ-নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও সুধী সমাবেশে ড. আবু রেজা নদভী এমপি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। সাতকানিয়া আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট আব্দুর রকিব চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মেজবাহ উদ্দিন কচিরের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাস্টার ফরিদুল আলম, সাতকানিয়া আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এড. সুনিল বড়–য়া, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল হক, এডভোকেট তাজুল ইসলাম চৌধুরী, এডভোকেট মাহমুদুর রহমান, এডভোকেট হাফিজুল ইসলাম মানিক, এডভোকেট আশীষ কুমার দত্ত, এডভোকেট মোহাম্মদ শাহেদ, এডভোকেট রাজিয়া সুলতানা, এডভোকেট রাশেদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য জসিম উদ্দিন, মাদার্শা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আ ন ম সেলিম চৌধুরী, আমিলাইশ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এইচ এম হানিফ, সাতকানিয়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র এ.কে.এম. মোরশেদ, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাহাবুদ্দীন প্রমুখ।